সেই মদরিচকেই আজ রিয়ালের এত অবহেলা!

32
লিওনেল মেসি আর ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর দ্বৈরথে ছেদ টেনে এই লুকা মদরিচই রিয়াল মাদ্রিদ আর ক্রোয়েশিয়ার খেলোয়াড় হিসেবে জিতেছিলেন ব্যালন ডি’অর। পেয়েছিলেন বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়ের তকমা। অথচ সেই মদরিচকেই আর দলে রাখতে চাইছে না রিয়াল মাদ্রিদ

বয়স হয়ে গেছে ৩৪। রিয়ালের মূল একাদশে এখন আর অবিচ্ছেদ্য নন লুকা মদরিচ। তাই বলে দাম এতটাই কমে গিয়েছে যে দুই বছর আগে ব্যালন ডি’অর জেতা তারকাকে নামমাত্র মূল্যে ছেড়ে দেবে রিয়াল মাদ্রিদ?

অবস্থাদৃষ্টে সেটাই মনে হচ্ছে। ব্যালন ডি’অর জেতা এই তারকার সঙ্গে রিয়াল মাদ্রিদের চুক্তির বাকি আছে আর মাত্র ছয় মাস! মদরিচ চাইলেই এই জানুয়ারিতে নিয়মানুযায়ী অন্য যেকোনো ক্লাবের সঙ্গে আলোচনা শুরু করতে পারবেন। তাদের প্রস্তাব যদি মদরিচের পছন্দ হয়, আগামী জুনে যোগ দিতে পারবেন তাদের দলে। এখনো ৩৪ বছর বয়সী এই ক্রোয়েশিয়ার মিডফিল্ডারের সঙ্গে চুক্তি বৃদ্ধি বিষয়ক কোনো আলোচনা করেনি রিয়াল। আর রিয়াল যদি চুক্তির ব্যাপারে আগ্রহ না দেখায়, তাহলে আসছে জুনে ফ্রিতেই অন্য ক্লাবে যোগ দেবেন মদরিচ।

এই সুযোগটাই নিতে চাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের লিগ এমএলএসের ক্লাব ডিসি ইউনাইটেড। এমএলএসের প্রতি ক্লাবে তিনজন দামি খেলোয়াড় খেলতে পারেন। বাড়তি ট্রান্সফার ফি দিয়ে এই তিনজন খেলোয়াড়কে আনে ক্লাবগুলো, কিংবা দলের অন্যান্য তারকাদের চেয়ে এই তিনজনের বেতন অনেক বেশি হয়। এই তিনজনকে বলা হয় ‘ডেজিগনেটেড প্লেয়ার’ বা মনোনীত খেলোয়াড়। এই মনোনীত খেলোয়াড় হিসেবে ডিসি ইউনাইটেড দলে আনতে চাইছে লুকা মদরিচকে। কিছুদিন আগে এই দলটায় ‘মনোনীত খেলোয়াড়’ হিসেবে খেলে গিয়েছেন ইংলিশ স্ট্রাইকার ওয়েইন রুনি। রুনি চলে যাওয়ায় যে জায়গা ফাঁকা হয়েছে, সে জায়গাতেই মদরিচকে আনার ইচ্ছে ডিসি ইউনাইটেডের।

টনি ক্রুস আর কাসেমিরো ছাড়া রিয়াল মাদ্রিদের মূল একাদশের আরেকজন মিডফিল্ডার হিসেবে উরুগুয়ের ফেদেরিকো ভালভার্দেকেই এখন বেশি পছন্দ জিনেদিন জিদানের। লুকা মদরিচের জায়গাতেই এখন নিয়মিত খেলছেন ভালভার্দে। এমনকি গত এল ক্লাসিকোতেও যেখানে তিনজনের জায়গায় চারজন মিডফিল্ডারকে খেলিয়েছিলেন জিদান, সেখানেও জায়গা হয়নি মদরিচের। কাসেমিরো ও ক্রুসের সঙ্গে খেলেছিলেন ভালভার্দে ও ইসকো। মদরিচ যে একেবারেই খেলেন না, তা নয়। মিডফিল্ডারদের মাঝে লিগে সবচেয়ে বেশি গোল তাঁর। তবে আগে যেমন মাদ্রিদের মূল একাদশের অবিচ্ছেদ্য অংশ ছিলেন, এখন আর তা নন।

এখন ডিসি ইউনাইটেড ঝোপ বুঝে কোপ মারতে পারবে কি না, সেটাই দেখার বিষয়!