সমালোচনার মুখে নোবেলঃ বললেন তামাশা করেছি

181
ছবি সংগৃহীত

মাঈনুল আহসান নোবেল একজন বাংলাদেশী গায়ক এবং ইউটিউবার। তিনি নোবেল ম্যান নামেও পরিচিত। তিনি ভারতীয় রিয়ালিটি শো সারে গা মা পা তে ২০১৮-১৯ মৌসুমে তৃতীয় স্থান অর্জন করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান । গতমঙ্গলবার তার ফেসবুক পেজে একটা স্ট্যাটাস দিয়ে তিনি সমালোচনার মুখে পড়েছেন। তিনি লিখেছেন, বাংলাদেশের সংগীতশিল্পীদের গত দশ বছরে কোনো অর্জন নেই। এমনকি সংগীত লেজেন্ডেদেরও তিনি গান শেখানোর কথা তাঁর সেখানে উল্লেখ করেছেন। এটি নোবেলের ঔদ্ধত্যপূর্ণ কথায় তার সমালোচনার ঝড় বয়ে গেছে। এসব নিয়ে কথা হয় নোবেলের সঙ্গে।

হঠাৎ এ ধরনের স্ট্যাটাস দিলেন কেন?

এটি আমার তামাশা। মানে ‘তামাশা’ নামে আমার একটি মৌলিক গান আগামী মাসে আমার ইউটিউব চ্যানেল ‘নোবেলম্যান’ থেকে প্রকাশিত হবে। গানটির প্রকাশের আগে আগে একধরনের তামাশা করেই মার্কেটিং কৌশল নিয়েছি। এর বাইরে কিছুই নয়।

কিন্তু মার্কেটিং কৌশল করতে গিয়ে আপনি বাংলাদেশের গানের মানুষদের নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিরূপ মন্তব্য করবেন? ‘লেজেন্ডদের সম্পর্কে ঔদ্ধত্যপূর্ণ মন্তব্য করবেন?

আমি তো আগেই বলেছি, এটি গানের মার্কেটিং কৌশল। তবে আমি জানি, এই স্ট্যাটাসে গানের লেজেন্ডরা রাগ করছেন, আমাকে খারাপ বলছেন। আমি তাঁদের কাছে মাফ চাইছি, ক্ষমা চাইছি। প্রয়োজন হলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গিয়ে মাফ চাইব। আমি সত্যি সত্যি তো তাঁদের এ কথা বলিনি। গানের প্রচারের জন্য বলেছি।

আপনি প্রায় নিজেকে সমালোচনার মধ্যে ফেলে দেন, কেন?

অনেক সময় আমি বলি এক, সবাই সেটাকে অন্য রকম বানিয়ে ফেলে আমাকে নিয়ে সমালোচনা তৈরি করেন। তবে আমার কাছে মনে হয়, পর্দার সামনের জনপ্রিয় মানুষদের সত্য–মিথ্যা ঘটনা নিয়ে বেশি সমালোচনা হয়। পান থেকে চুন খসলেই এসব মানুষের বিপদ। আমাকে শ্রোতা–দর্শক পর্দার সামনেই দেখতে চান। আমাকে নিয়ে সমালোচনাও বেশি হয়।

আপনি স্ট্যাটাসে বিগত ১০ বছরে হিটফ্লপ গানের প্রসঙ্গটি এনেছেন…

সত্য কথা কী, ফিল্মের বাইরে খুব বেশি গান দর্শকপ্রিয়তা পায়নি আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে। আরমান আলিফের ‘অপরাধী’ গানটা তুমুল জনপ্রিয়তা পায়। তবে এই গান দিয়ে শিল্পীর কোনো লাভ হয়নি। এক শ্রেণির মানুষ গানটি দিয়ে কোটি কোটি টাকা কামিয়েছেন। অন্যদিকে আরমান আলিফ বাইরে এক লাখ টাকার শো পাচ্ছেন না। পথে পথে ৫০ হাজার টাকার শো করে ‘নেশা’র গান গেয়ে বেড়াচ্ছেন। এই হলো অবস্থা। এসব কারণে ফিল্মের বাইরে মৌলিক গান ডুবে যাচ্ছে।

তামাশাগানটি কবে আসবে?

৭ জুনের মধ্যে আসবে। একই সঙ্গে হিন্দি ও ইংরাজিতেও প্রকাশিত হবে গানটি। লেখা, সুর ও সংগীত জিহানের। ভিডিওর কাজ চলছে। মোট পাঁচটি গান করেছি। সেখান থেকে ‘তামাশা’ গানটি প্রকাশিত হবে। এটি আমার বাংলাদেশে প্রথম মৌলিক গান।