বার্সায় নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবছেন না ভালভেরদে

0
42
চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বার্সেলোনা ছিটকে পড়ার পর তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন কোচ এরনেস্তো ভালভেরদে। অনেকেই কাম্প নউয়ে তার শেষ দেখে ফেলেন। তবে সেসব নিয়ে মোটেও ভাবছেন না বলে জানিয়েছেন এই স্প্যানিয়ার্ড।

ইউরোপের মঞ্চে ব্যর্থ হলেও ঘরোয়া ফুটবলে দাপট দেখিয়েছে বার্সেলোনা। লা লিগা শিরোপা ধরে রাখার পাশাপাশি ঘরোয়া ডাবল জয়ের লক্ষ্যে শনিবার বাংলাদেশ সময় রাত একটায় কোপা দেল রের ফাইনালে ভালেন্সিয়ার মুখোমুখি হবে দলটি। তবে এই ম্যাচের ফল যাই হোক না কেন, তা ক্লাবটিতে তার ভবিষ্যৎ নির্ধারণে ভূমিকা রাখবে না বলে মনে করেন ভালভেরদে।

চলতি মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমি-ফাইনালে লিভারপুলের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ৩-০ গোলে জয়ের পর ফিরতি দেখায় অ্যানফিল্ডে ৪-০ ব্যবধানে হেরে বিদায় নেয় বার্সেলোনা। প্রতিযোগিতাটির গত আসরেও অনেকটা একইরকম তেতো অভিজ্ঞতা হয়েছিল তাদের। কোয়ার্টার-ফাইনালের প্রথম লেগে রোমার বিপক্ষে ঘরের মাঠে বড় জয়ের পর ফিরতি পর্বে হেরে বিদায় নিয়েছিল স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা।

শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে ভালভেরদে বলেন, “কাপ ফাইনালে হারলে তা ক্লাবে আমার থাকা বা না থাকায় প্রভাব ফেলবে কিনা, এ নিয়ে আমি খুব বেশি ভাবছি না।”

“আমি আমার ভবিষ্যৎ নিয়ে খুব বেশি ভাবছি না। আমি শুধু ভালেন্সিয়ার বিপক্ষে জয় পাওয়া নিয়ে ভাবছি।”

“শুধু আমি না, ভালেন্সিয়ার কোচ মার্সেলিনোও কিছু কঠিন সময় কাটিয়েছে। রিয়াল মাদ্রিদ দুইবার কোচ বদল করেছে। ক্লাব সবসময় আমার কাজকে সমর্থন দিয়েছে। আমার কোনো অভিযোগ নেই; এখানে থেকে আমি উচ্ছ্বসিত।”

রেকর্ড টানা পঞ্চম কোপা দেল রে শিরোপা জিততে মরিয়া ভালভেরদে। তবে সেটা সহজ হবে না বলে বিশ্বাস ৫৫ বছর বয়সী এই কোচের।

“কাপ ফাইনালকে আমরা অনেক গুরুত্ব দিচ্ছি কারণ এটা আমাদের আবারও ঘরোয়া ডাবল জয়ের পাশাপাশি ক্লাবের জন্য আরেকটা শিরোপা জয়ের একটা সুযোগ দিচ্ছে।”

“এ পর্যায়ে আসতে পারাটা সহজ নয়, বেশ কয়েকবার পিছিয়ে পড়ে আমাদের ঘুরে দাঁড়াতে হয়েছে। দারুণ ছন্দে থাকা ভালেন্সিয়ার বিপক্ষে ফাইনাল কতটা কঠিন হবে তা আমরা জানি। লিগে আমরা তাদের সঙ্গে দুইবার ড্র করেছিলাম।”

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে