ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় ঢাবি শিক্ষক সমিতির প্রতিবাদ

31

রাজধানীর শাওড়ায় বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস থেকে ভুল করে কুমিটোলায় নামার পর রবিবার (৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে ধর্ষকের শাম্তির দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

সোবার (৬ ডিসেম্বর) বিকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভুঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামালের স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমরা অত্যন্ত বেদনাহত চিত্তে ও তীব্র ক্ষোভের সাথে জানাচ্ছি যে, গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ছাত্রী কুর্মিটোলা এলাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের লাল বাস থেকে নামলে কিছু দুর্বৃত্ত কর্তৃক অপহরণ ও ধর্ষণের শিকার হন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে আমরা এই মানবতাবিরোধী জঘন্য ও পাশবিক ঘটনায় ধিক্কার ও প্রতিবাদ জানাই।

বিবৃতিতে ধর্ষণের এ ঘটনাকে মানবতাবিরোধী, জঘন্য ও পাশবিক উল্লেখ করে বলা হয়, ধর্ষণ একটি মারাত্মক সামাজিক ব্যাধিতে পরণিত হচ্ছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর শৈথিল্য, বিচারের দীর্ঘসূত্রিতা এবং কখনো কখনো সঠিক তদন্তের অভাবে অপরাধীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হওয়ায় সমাজে ধর্ষণ-ব্যাধির বিস্তার ঘটে চলেছে। এখনই এসবের মূলোৎপাটনে রুখে দাঁড়াতে হবে, নতুবা এটি অধিকতর মহামারি আকার ধারণ করবে।

এছাড়াও, দুই বছর আগে ধর্ষণের পর হত্যাকাণ্ডের শিকার কুমিল্লার ভিক্টোরিয়া কলেজের শিক্ষার্থী সোহাগী জাহান তনুসহ অন্যান্য নিপীড়নের ঘটনার বিচার দাবি জানানো হয় এ বিজ্ঞপ্তিতে।