চেলসি খেলোয়াড়ের হাতেই মরতে পারতেন চেলসির মালিক

46
গাড়ি দুর্ঘটনায় তিন বছর আগে মারা যেতে পারতেন চেলসি মালিক রোমান আব্রামোভিচ। যে দুর্ঘটনায় জড়িত ছিলেন চেলসিরই সাবেক তারকা প্যাট নেভিন

মাঠে এসে এই চেলসির খেলা দেখছেন তো, ঘণ্টা দুয়েক পরেই উড়ে যাচ্ছেন রাশিয়ায়, অফিশিয়াল কোনো সভায় যোগ দিতে। এমনই ব্যস্ত রুশ ধনকুবের রোমান আব্রামোভিচ। আরেকটি পরিচয় আছে তাঁর—চেলসির মালিক। তাঁর এই ব্যতিব্যস্ত জীবনের শেষ হতে পারত তিন বছর আগেই। সেটিও কিনা চেলসির এক সাবেক খেলোয়াড়ের হাতে!

চেলসির সেই সাবেক খেলোয়াড়টি হলেন প্যাট নেভিন। গ্ল্যাসগোয় বড় হওয়া স্কটিশ নেভিন ১৯৮৩ থেকে ১৯৮৮ পর্যন্ত খেলেছেন চেলসিতে। তবে ঘটনাটা আরও অনেক পরের, ২০১৫ সালে। গ্রীষ্মে ছুটি কাটানোর জন্য তখন নেভিন স্কটল্যান্ডের আ্যারানের আইসলেতে ছিলেন। ছুটি কাটানোর জন্য এটিই তার প্রিয় জায়গা। আর সেখানে গেলে গাড়ি নিয়ে পুরো এলাকা চষে না বেড়িয়ে পারেন না। তো রাস্তায় বাঁক নেওয়ার সময় নেভিনের গাড়ি ধাক্কা দেয় এক সাইকেল আরোহীকে। সাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে যান তিনি। গাড়ি থেকে নেমে এসে নেভিন দেখেন সে আরোহী আর কেউ নন—আব্রামোভিচ! একটু এদিক-ওদিক হলেই মারা পড়তেন!

তিন বছরেরও বেশি সময় আগের সে ঘটনাটা গতকাল বিবিসি রেডিও স্কটল্যান্ডকে জানিয়েছেন ৫৬ বছর বয়সী নেভিন, ‘আমি লোকটিকে মেরে ফেলতে পারতাম। আর সে লোকটি ছিলেন রোমান আব্রামোভিচ।’

সে সময় প্রমোদতরী নিয়ে তিনি ছুটি কাটাতে বেরিয়েছিলেন রোমান আব্রামোভিচ। আইসলের উপকূলে নোঙর করিয়ে প্রমোদতরী থেকে তিনি বেরিয়ে এসেছিলেন সাইক্লিং করার জন্য। দুর্ঘটনাটা ঘটে গেলে সেটা আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের শিরোনাম হতো। সেটি নিয়ে মজাও করলেন নেভিন, ‘আব্রামোভিচকে যদি মেরে ফেললাম, কী একটা গল্পই না হতো!’