করোনায় একজন ব্যাংকারের এ কেমন মৃত্যু!

341
ছবি সংগৃহীত

সোনালী ব্যাংকের লোকাল ব্রাঞ্চে কর্মরত ছিলেন মাহাবুব এলাহী (৪০) । তিনি গত ১০ এপ্রিল প্রথমবারের মত বাবা হন তাদের ৯ বছরের দাম্পত্য জীবনে। তবে আনন্দের এই সময়ে তিনি সদ্য ভূমিষ্ঠ হওয়া মেয়ে ও মায়ের পাশে থাকতে পারেননি। তার পরিকল্পনা ছিল, শিগগিরই ভারতের চেন্নাইয়ে টেস্ট টিউবের মাধ্যমে হওয়া মেয়েকে দেশে নিয়ে আসবেন । কিন্তু করোনা পরিস্থিতি মাঝখানে বাধা হয়ে দাড়ালো। ওদিকে মা-মেয়েও দেশে ফিরতে পারছিলেন না। এর মধ্যে নি তার করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় ঢাকা থেকে কুমিল্লা শহরের নিজ বাড়িতে আসেন তিনি। এরই মধ্যে গত রবিবার জানতে পারেন, চাকরিতে তাঁর পদোন্নতি হয়েছে। ওই দিনই দুপুরে ফেসবুকে স্ট্যাটাস বিয়ে সুখবর সবাইকে জানান। শারীরিক দিক থেকে আসে অভিনন্দন এর বন্যা। আবার সেই দিনই রাত ৮টায় তাঁর মৃত্যুর খবর পান সবাই।

এই ব্যাংক কর্মকর্তা মৃত্যুর আগে একবার চোখের দেখাও দেখতে পারলেন না সদ্য ভূমিষ্ঠ হওয়া সন্তানকে । তাকে স্ত্রী-সন্তানও শেষ বিদায় জানাতে পারলেন না ।

মাহাবুব এলাহীর ভাই গোলাম রাব্বানী জানান, ঢাকায় করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর মাহাবুব বাড়িতে চলে আসেন। গত শনিবার তিনি ভাইকে সঙ্গে নিয়ে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনা পরীক্ষা করান। সেই পরীক্ষার ফল আসার আগেই মারা যান মাহাবুব। তবে পরীক্ষায় তাঁর করোনা পজিটিভ আসে।