এমন মাস্ক উদ্ভাবন করল ইসরায়েল যা নিজে নিজেই জীবাণু মুক্ত হয়

283
ছবি সংগৃহীত

বিশ্বজুড়ে মহামারি রূপ নিয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস।করোনার এপিসেন্টার হিসেবে পরিচিত দেশগুলোতে ফেসমাস্ক পরায় হাজার হাজার মানুষ প্রাণঘাতী ভাইরাসটি থেকে রক্ষা পেয়েছেন বলে সম্প্রতি একটি গবেষণায় বলা হয়।

গবেষকরা জানান, করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব মানা এবং ঘরে থাকার চেয়েও কার্যকরী হলো ফেসমাস্ক পরা।গবেষণায় বলা হয়, সংক্রমণের হারের নাটকীয় পরিবর্তন হয় যখন গত এপ্রিলের ৬তারিখ ইতালিতে এবং ১৭তারিখ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক সিটিতে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়।পাশাপাশি শুধুমাত্র মুখ ঢেকে রাখার কারণে বাতাসের মাধ্যমে ছড়ানো করোনা ভাইরাস থেকে হাজার হাজার মানুষ রক্ষা পেয়েছেন বলে দাবি করেছেন গবেষকরা।

করোনা সংক্রমণ রোধে মাস্ক পরা এখন গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এদিকে, লকডাউন উঠে যাওয়ায় বাইরে মানুষের সমাগমও বাড়ছে।ফলে প্রতিদিন নতুন মাস্কের চাহিদা বাড়ছে।তবে একই মাস্ক একাধিকবার ব্যবহার করলে সেটি থেকে ভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা থেকে যায় বলেই জানিয়েছেন গবেষকরা।

এমন যখন পরিস্থিতি তখনই স্বস্তি দায়ক এক খবর দিলেন ইসরায়েলি বিজ্ঞানীরা।ইসরায়েলের গবেষকরা বলছেন, তারা এমন একটি ফেসমাস্ক উদ্ভাবন করেছেন, যা নিজে নিজে পরিস্কার হয়ে যায়।

এই মাস্কে একটি ইউএসবি পোর্ট আছে যেটি দিয়ে এটিতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া যায়।মাস্কের ভেতর কার্বনফাইবারের একটি স্তর আছে, ইউএসবি সংযোগের মাধ্যমে যেটিকে ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত উত্তপ্ত করা যায়।এই তাপে করোনাভাইরাস মরে যায়।

তবে মাস্কটি যখন ইউএসবির মাধ্যমে জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে, তখন এটি না পরার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।এভাবে মাস্কটি জীবাণু মুক্ত করতে সময় লাগে ৩০ মিনিটের মতো।