আবার যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে এফডিসি

66

কোথাও পেরেক মারার টুংটাং শব্দ। বানানো হচ্ছিল কৃত্রিম বাড়ি। কোথাও শোনা যাচ্ছিল ‘ফাইভ ফোর থ্রি টু ওয়ান জিরো অ্যাকশন’ শব্দ। কোথাও দ্রুতগতিতে গাড়ির যাওয়া–আসা। পরিচালক, প্রযোজক, কলাকুশলীসহ নানা লোকজনের ছোটাছুটি ছিল চোখে পড়ার মতো। গতকাল সোমবার দুপুরে চলচ্চিত্র তৈরির কারখানা হিসেবে পরিচিত এফডিসিতে এমন সব কর্মযজ্ঞ চোখে পড়ে। বহুদিন পর এমন দৃশ্য দেখে সবার একটাই মন্তব্য, এফডিসি যেন আজ প্রাণ ফিরে পেল।

বেলা আড়াইটা। প্রধান ফটক পেরিয়ে ৩ নম্বর ফ্লোরের সামনে ছিলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া রূপসজ্জাশিল্পী মানিক। তিনি বিজ্ঞাপনচিত্রের কাজ করছিলেন। ২ নম্বর ফ্লোরে শাকিব খান। মুখভর্তি দাড়ি, বোতাম খোলা শার্ট, ছেঁড়া প্যান্ট ও গলায় চাদর তাঁর। পাশেই ছবির অন্যতম প্রযোজক মোহাম্মদ ইকবাল। তাঁদের দৃষ্টি মনিটরের দিকে। পাশে হাঁটু গেড়ে বসে কানে কানে কথা বলছিলেন তাঁর রূপসজ্জাশিল্পী সবুজ। পাশে যেতেই শাকিব খান বললেন, ‘বীর ছবির গানের শুটিং করছি।’ এই ছবির পরিচালক কাজী হায়াৎ।

ক্যাসিনো ছবির শুটিংয়ে তাসকিন, নিরব ও সাদিয়া তানজিন ।  ছবি: প্রথম আলোবীর ছবির সেট থেকে বেরিয়ে সামনে এগোতেই প্রশাসনিক ভবনের সামনে দেখা গেল নিরব ও তাসকিনকে। হাতকড়া পরিহিত তাসকিনকে জোর করে গাড়িতে তুলছেন নিরব। গাড়ি স্টার্ট করার সঙ্গে ‘কাট’ শব্দে খেয়াল করলাম পরিচালক সৈকত নাসিরকে। তিনি জানালেন, ক্যাসিনো ছবির শেষ দিককার শুটিং করছেন।
নিরব বলেন,‘খুব যত্ন নিয়ে ছবির কাজ হচ্ছে। পাশে শাকিব ভাই কাজ করছেন। আমাদের দুই ছবিরই নায়িকা বুবলী। কাকতালীয়ভাবে আজ দুটি ছবিরই শুটিং হচ্ছে নায়িকা ছাড়া।’
বের হওয়ার পথে দেখা গেল, ৯ নম্বর ফ্লোরে সেট নির্মাণের প্রস্তুতিও শেষ দিকে। জানা গেল, সেখানে শুরু হবে শামীম আহমেদ রনি পরিচালিত বিক্ষোভ ছবির শুটিং।