আজ মিথিলা-সৃজিতের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা

20

অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলা ও ওপার বাংলার নির্মাতা সৃজিত মুখার্জির বিবাহোত্তর সংবর্ধনা আজ ।জীবনের দুইজনেরই দ্বিতীয় প্রহর শুরু করেছিলেন গত বছরের শেষ মুহূর্তে। গত ৬ ডিসেম্বর। ঘরোয়া আয়োজনেই তাদের বিয়ের কাজ সম্পন্ন হয়। তখন অবশ্য বিয়েটা হয়েছিল সাদামাটাভাবেই। বিয়ের পর সুইজারল্যান্ডে চুটিয়ে হানিমুন করেন নবদম্পতি।  বিয়েতে দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠ কয়েকজন ছাড়া কারও থাকার সুযোগ হয়নি। তাই বিয়ের দুই মাসের মাথায় মিথিলা-সৃজিতের বিবাহোত্তর সংবর্ধনার আয়োজন করছে দুই পরিবার। আজ সন্ধ্যায় সৃজিতের রাজকুটিরে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন হতে যাচ্ছে।

জানা গেছে, আজ সৃজিত ও মিথিলা সাজবেন স্নিগ্ধ সাজে। এ সাজের দায়িত্ব পড়েছে ভারতীয় ফ্যাশন ডিজাইনার শর্বরী দত্তের ওপর।ভারতীয় গণমাধ্যমকে এ ডিজাইনার বলেন, ‘সৃজিত-মিথিলা এসেছিলেন। ওদের পছন্দের রঙ লাল। শুনলাম মিথিলা লাল পরছে। আর সৃজিত পড়বেন আচকান আর ধুতি। পোশাকে থাকবে ঘন সুতার কাজ।

বিয়ের আমন্ত্রণপত্রের শিরোনাম দিয়েছেন,বসন্ত এসে গেছে। এরপর লেখা, আমাকে আমার মতো থাকতে দাও… বলার দিন শেষ। নৌকার পালে চোখ রেখে দিন কাটানোর আশায় বিয়েটা করেই নিলাম। তাই আপাতত মিথিলা আর সৃজিত এক রাস্তায় ট্রামলাইন, এক কবিতায় কাপলেট। আমাদের খুনসুটি আর ঝগড়াঝাঁটির জীবন আড্ডা দিয়ে জমজমাটি করে তুলতে আসবেন কিন্তু। নমস্কারান্তে- মুখার্জি কমিশন।

২০০৬ সালের ৩ আগস্ট ভালোবেসে সংগীতশিল্পী তাহসানকে বিয়ে করেন মিথিলা। তাদের সংসারে একমাত্র কন্যা আইরা তেহরীম খান। তবে দু’জনের বনিবনা না হওয়ায় ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে বিচ্ছেদে যান তাহসান-মিথিলা। এরপর মিথিলা নতুন সংসার শুরু করলেও তাহসান এখনো একাই আছেন।